স্যামসাং নাকি শাওমি

স্যামসাং নাকি শাওমি

স্মার্ট ফোন কেনার জন্য কারো কাছে কোনো সাজেশন চাইলেই এখন এক কথায় চোখ বন্ধ করে সবাই যে নামটি বলে সেটা হল Xiaomi ; জানুক আর নাই জানুক, অন্য কোনো ফোন ইউস করুক বা না করুক কিছু মানুষ শুধু শাওমি শাওমি করেই যাবে। কারন জিজ্ঞেস করলে একটা উত্তরই পাবেন “দাম ভাই দাম, এমন দামে এমন সেরা সেট কই পাবেন”। এবং এটা সত্যি। আসলে একদম অল্প প্রাইস এ শাওমি অবাক করে দেয়ার মত স্পেসিফিকেশন এর ফোন দিচ্ছে বাজারে।

অন্য স্যামসাং ফ্যানরা কিন্তু এখনো স্যামসাং ফ্যানই রয়ে গেছে। এবং শাওমি ভক্তদের  Samsung ডিভাইসের সাথে তুলনা তারা কিছুতেই মেনে নিতে পারে নাহ। (আইফোন ফ্যান/ ডিভাইস হিসাবের বাইরে 🙄🤐)

তো এই স্যামসাং ভার্সেস শাওমি ডিভাইসের যুদ্ধ নিয়ে কিছু ব্যাক্তিগত মতামত শেয়ার করি।

সব দিক বিবেচনা করলে আসলে স্যামসাং আর শাওমি এর তুলনা করা চলে না।
যেমন ধরেন

ডিস্প্লেঃ

Image Source: www.androidcoliseum.com

সামসাং এর আমোলেড ডিসপ্লে এর ধারে কাছে কিছু নাই। যতই জোর দেননা কেনো , এটাই সত্যি।
কিন্তু ১৫-২০ হাজার এর মোবাইলে ফুল এইচডি ডিস্প্লে (যথেষ্ঠ কোয়ালিটি) শাওমি এর চেয়ে বেটার কেউ দিতে পারে নাহ।

পারফরম্যান্সঃ

Source: www.blogmiuitutorial.com

এস৮ থেকে সামসাং এর সিস্টেম ইউ আই “Samsung Experience (Former TouchWIZ)” কিন্তু একদম ঢেলে সাজানো হয়েছে। টপ লেভেল হার্ডওয়্যার আর সফটওয়ার এর সংমিশ্রনে পারফমেন্স কিন্তু অসাধারন।
অন্যদিকে মিইউআই ভালো কিন্তু ব্লোটওয়্যার মুটামুটি অনেক। বাজেট হার্ডওয়্যার অনুযায়ি পারফরমান্স ভালো। কিন্তু আপনি নিশ্চই Snapdragon 845 এর সাথে 625 এর ইফিসিএন্সি তুলনা করার বোকামি করবেন নাহ ।

বিল্ড কোয়ালিটিঃ

Source: www.ndtv.com

যাষ্ট একটা জিনিষ দিয়ে সামসাং এর বিল্ড কোয়ালিটি এর ধারনা করা যায়। A সিরিজ থেকে শুরু সব গুলো ফোন IP67 – IP 68 রেটিং (water and dust resistant) এর। ইভেন ৩-৪ বছর আগের S6 ও।
অন্য দিকে শাওমি এর Mi6 একমাত্র Splash Resistance ফোন। তাও water resistant না , এমনকি অফিসিয়াল IP রেটিং ও নাই।

ক্যামেরা

source: digit.in

শাওমি বাজেট ফ্রেন্ডলি ডিভাইস। সাধারন ভাবেই অনেক কিছু তাদের কম্প্রোমাইজ করতে হয়। ক্যামেরা এর মধ্যে একটা। যে মডেলই বলেন , লো লাইট এ শাওমির ক্যামেরা যাচ্ছেতাই। যার মুল কারন সেন্সর।
অন্যদিকে সামসাং এর ক্যামেরা সেন্সর (এবং ডিসপ্লে ও) সামসাং এর নিজের ম্যানুফাকচার করা। এবং মোটামুটি সব ক্ষেত্রেই ক্যামেরা সামসাং এর বেটার। যারা অ্যাপাচার, সেন্সিটিভিটি, ফোকাল লেংথ এইগুলা ভালো বুঝেন , তারা বুঝবেন আমি কি বুঝাতে চাচ্ছি। যাষ্ট চেহারা ব্রাইট (ফর্শা / বিউটি মোড) , unstable bokeh ইফেক্ট থাকলেই যে ক্যামেরা ভালো এটা একটা ভুল ধারনা। ফোটো কোয়ালিটি একটা বড় ফ্যাক্ট।

প্রাইসঃ

এখানেই আসল ব্যাপার। সব বুঝলেন কিন্তু আপনার বাজেট ১৫ হাজার, তাহলে কিন্ত শাওমি, অপ্প ছাড়া আপনার গতি নাই। যদি ফোনের পারফর্মান্স ম্যাটার করে। কারন ১৫-২৫ এর মধ্যে আপনি শুধু জে সিরিজ এর ফোন পাবেন সামসাং এর । সেটার পার্ফরমান্স এর সিম্ফনি লেভেল এর । (সিম্ফনি কে ছোট করসি নাহ। ওভার অল পারফর্মান্স এর ব্যাপারে বললাম)

 

কিন্তু আপনি যদি আবার ৩৫-৪০+ বাজেট করেন , তাহলে কিন্তু সামসাং বেষ্ট। এমনকি আমি ওয়ান প্লাস কেও পিছনে রাখব এ ব্যাপারে। এটা নিয়ে কমেন্ট এ এত বিস্তারিত লিখা পসিবল নাহ।

মোট কথা হল , যারা চোখ বুজে শাওমি বেষ্ট , শাওমি বেষ্ট করতাসেন সেম প্রাইজ রেঞ্জের (মে বি ৩৫-৪০ কে) দুইটা ফোন Thoroughly ইউজ করলে বুঝতে পারবেন।
সেইম ব্যাপারটা সামসাং এর ক্ষেত্রেও।
শাওমি / অপ্প / ভিভো এবং সামসাং প্রত্যেকে নিজ নিজ সেগমেন্ট এ টপার। same goes to apple devices. সো এভাবে আসলে তুলনা করা চলে না।

Source: Youtube.com

 

 

Leave a Comment